মমতার দিল্লি সফরে থাকছে বড় চমক! তৃণমূলে যোগ দিতে পারেন গান্ধী পরিবারের সদস্য,জল্পনা তুঙ্গে

 

Advertisement

একুশের বাংলার বিধানসভা নির্বাচনে বিপুল পরিমান ভোট নিয়ে তৃতীয়বার বাংলার মসনদে বসার পর এবার রাজ্যের বাইরে ঘর গোছানোর কাজ শুরু করেছে ঘাসফুল শিবির। আর তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ভিন রাজ্যের সফর মানেই নতুন কিছু না কিছু প্রাপ্তি। ত্রিপুরা থেকে গোয়া রাজধানী দিল্লি থেকে উত্তরপ্রদেশ প্রতিটি রাজ্য নিজের সেনা বাহিনী তৈরি করতে উদ্যত মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

Advertisement

পুজোর পরেই মুখ্যমন্ত্রীর গোয়া সফর শেষ হয়েছে। এবার আবার আগামী সপ্তাহে পাড়ি দিচ্ছেন দিল্লি। দিল্লিতে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উপস্থিতিতে তৃণমূলে যোগ দিতে পারেন গান্ধী পরিবারের সদস্য বরুণ গান্ধী। শোনা যাচ্ছে বিজেপি নেতা বরুণ গান্ধী এবার তৃণমূলে যোগ দিতে চলেছেন।

Advertisement

গান্ধী পরিবারের রাজনৈতিক আদর্শের ঠিক বিপরীত পথে হাঁটা এই ব্যক্তি ইন্দিরার কনিষ্ঠপুত্র সঞ্জয় গান্ধীর ছেলে বরুণ। মা মেনকা গান্ধীর আদর্শে অনুপ্রাণিত হয়ে নিজেকেও সেই পথেই নিজের রাজনৈতিক ক্যারিয়ার গড়ে তোলেন তিনি। ‌বরুণ গান্ধী বর্তমানে মধ্যপ্রদেশের পিলভিটের সাংসদ। কিন্তু রাজনৈতিক মহল সূত্রে পাওয়া খবর অনুযায়ী জানা যায় যে বর্তমানে বিজেপির সাথে সম্পর্ক বিশেষ একটা ভালো নয় তার।

Advertisement

বরুন গান্ধী ও তার মাকে বর্তমানে কেন্দ্রীয় কমিটি থেকে বাদ দেওয়া হয়েছে। সাথে দলের সাথে যোগাযোগ ও নাকি খানিকটা ফিকে হয়েছে। যার কারণে নতুন রাজনৈতিক পরিচয় তৈরি করতে চাইছেন ইন্দিরার পৌত্র। ফলে পরিবারের রাজনৈতিক বিশ্বাস মেনে আবার কংগ্রেস শিবিরে ফিরে যাওয়া তার পক্ষে কার্যত অসম্ভব যার কারণে বিকল্প হিসেবে উঠে আসছে তৃণমূলের নাম।

Advertisement

বর্তমানে বিজেপি বিরোধী আন্দোলনে সবার প্রথমে উঠে আসছে তৃণমূলের নাম এবং গেরুয়া শিবিরের বিরোধী দলের মধ্যমনি সেই অর্থে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। যার জেরেই বরুণ গান্ধীর তৃণমূলে যোগ দেওয়ার জল্পনা তুঙ্গে। যদিও বা এখন অব্দি তৃণমূলের পক্ষ থেকে কোন বিবৃতি জারি করা হয়নি।

Advertisement

প্রসঙ্গত কিছুদিন আগে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের গোয়া সফর চলাকালীন তৃণমূলে যোগ দিয়েছেন টেনিস তারকা লিয়েন্ডার পেজ ও অভিনেত্রী নাসিফা আলি। এর আগে বিজেপির সাথে মতপার্থক্যের জেরে গেরুয়া শিবির ছেড়ে তৃণমূলে যোগ দিয়েছেন বর্ষিয়ান নেতা যশবন্ত সিং। বর্তমানে তিনি দলের অন্যতম একজন জাতীয় মুখপাত্র। তবে আগামী দিনে যদি বরুণ গান্ধী ঘাসফুল শিবিরে পা রাখেন তাহলে তা নিঃসন্দেহে হবে তৃণমূলের একটি বড় প্রাপ্তি।

Advertisement

Advertisement

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button