বিয়ের আসরে পুলিশের হানা,জানলা দিয়ে পালালো বর-বউ

 

Advertisement

‘জানলা দিয়ে বউ পালালো’- এই প্রবাদটি গ্ৰামবাংলার একটি বহুকথিত প্রবাদ কিন্তু সেই প্রবাদের সাদৃশ্যতা দেখা গেল এবার বাস্তবেও। বিয়ের রাতে পুলিশের তাড়া খেয়ে জানলা দিয়ে পালালো নববধূ ও সাথে বরও। ঘটনাটি ঘটেছে ডায়মন্ড হারবারে। জানা যায় একটি ১৪ বছরের নাবালিকার সাথে বিয়ের আসরে বসেছিল এক বয়স কুড়ির যুবক এবং সেই কথা পুলিশের কানে আসতেই তাঁরা হানা দেয় বিয়ের আসরে।

Advertisement

পুলিশ আসতেই বিয়ের আসর ছেড়েই জানলা দিয়ে পালায় নবদম্পতি। যদিও শেষরক্ষা হয় না। যুবককে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করে সতর্ক করে ছেড়ে দেওয়া হয় এবং মেয়েটিকে পাঠানো হয়েছে সিনি চাইল্ড হোমে।

Advertisement

দক্ষিণ 24 পরগনার কুলপির নিশ্চিন্তপুরের বাসিন্দা ওই বছর ২০-র যুবক ও মেয়েটির বাড়ি পাশেই নোদাখালিতে। মেয়েটি বোহালি হাই স্কুলের নবম শ্রেণীর ছাত্রী। জানা গিয়েছে ওই যুবকের সাথে এক বছরের প্রেমে এর আগেও বাড়ি ছেড়েছিল ওই কিশোরী। তবে সেবার তাকে আবার বাড়িতে ফিরিয়ে নিয়ে যায় তার বাবা-মা।

Advertisement

কিন্তু এদিন মেয়েটিকে আর ফেরানো যায় নি। জানা যায় ছেলেটি দিদির বাড়ি রয়েছে ডায়মন্ড হারবারের লালবাটি গ্রামে। এবার নিজের দিদির সাহায্যেই বছর ১৪-র নাবালিকাকে বিয়ে করতে চেয়েছিল সেই যুবক। সেইমতো শনিবার রাতে গ্রামের একটি চণ্ডীমণ্ডপে সে কিশোরীকে বিয়ে করে সে। কিন্তু সেই সময়ই খবর পেয়ে সেখানে উপস্থিত হয় ডায়মন্ড হারবার থানার পুলিশ।

Advertisement

পুলিশের উপস্থিতি জানতে পেরেই বাড়ির জানলা দিয়ে ঝাঁপ দিয়ে পালায় নববধূ এবং সাথে বরও। দুজনকে পালাতে দেখে তাদের ধাওয়া করে পুলিশ এবং অবশেষে ধরা পড়ে পুলিশের হাতে। মেয়েটি বর্তমানে লক্ষীকান্তপুর এর একটি হোমে রয়েছে। সেই সংস্থার কো-অর্ডিনেটর দেবারতি সরকার জানান,”মেয়েটির কাউন্সেলিং চলছে। ওকে আমরা বোঝাচ্ছি অল্প বয়সে বিয়ে করার ক্ষতিকার দিক। আশা করি, ও সব বুঝতে পারবে।”

Advertisement

Advertisement

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button