ক্ষমতায় আসলে ছাত্রীদের দেওয়া হবে স্কুটি ও স্মার্টফোন,উত্তরপ্রদেশে ভোটপ্রচারে এসে প্রতিশ্রুতি প্রিয়াঙ্কা গান্ধীর

 

Advertisement

গত দু’দিন আগে আসন্ন উত্তর প্রদেশ বিধানসভা নির্বাচনে নিজেদের প্রার্থী তালিকা ৪০ শতাংশ মহিলা সংরক্ষণ এর কথা ঘোষণা করেছে ভারতীয় জাতীয় কংগ্রেস। এবার বিশেষ করে মহিলা ভোট টানতে উচ্চমাধ্যমিক দ্বাদশ শ্রেণীর পরীক্ষায় উত্তীর্ণ ছাত্রীদের স্মার্টফোন ও তরুনীদের ইলেকট্রনিক স্কুটি দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিলেন কংগ্রেসের সাধারণ সম্পাদক প্রিয়াঙ্কা গান্ধী।

Advertisement

নিজের টুইটার হ্যান্ডেল থেকে তিনি এদিন লেখেন,‘গতকাল আমি কিছু ছাত্রীর সঙ্গে দেখা করেছি। তারা জানিয়েছে, পড়াশোনা আর নিরাপত্তার প্রয়োজনে তাদের স্মার্টফোন দরকার। আমি খুশি যে আজ ইস্তাহার কমিটির সম্মতিতে উত্তরপ্রদেশ কংগ্রেস সিদ্ধান্ত নিয়েছে,রাজ্যে ক্ষমতায় এলে ইন্টার পাস করা মেয়েদের স্মার্টফোন এবং স্নাতক তরুণীদের ইলেকট্রনিক স্কুটি দেওয়া হবে।’

Advertisement

প্রসঙ্গত আসন্ন উত্তর প্রদেশ বিধানসভা নির্বাচনের ঘন্টা বেজে গিয়েছে এবং সমস্ত রাজনৈতিক দলগুলো মরিয়া উত্তরপ্রদেশ দখল করবার। একদিকে নিজেদের ক্ষমতা বহাল রাখতে যেমন মরিয়া গেরুয়া শিবির তেমনই অন্যদিকে মহিলা ভোটের ওপর বিশেষ  নজর রেখে ক্ষমতা দখলের চেষ্টায় কংগ্রেস শিবির।

Advertisement

মূলত উত্তরপ্রদেশে কয়েকবছর ধরে নারীদের প্রতি নির্যাতনের ঘটনা চরম আকারে বৃদ্ধি পেয়েছে এবং এটিকে হাতিয়ার করেই যোগী সরকারকে বারবার কটাক্ষের তীর ছুড়ছেন কংগ্রেস সহ অন্যান্য বিরোধীরা। তাই মহিলা শক্তিকেই কাজে লাগিয়েই গেরুয়া শিবিরের ক্ষমতা ভঙ্গ করতে মরিয়া রাহুল-সোনিয়ারা। যার জেরে আসন্ন নির্বাচনে মহিলাদের জন্য ৪০ শতাংশ আসন সংরক্ষণের কথা ঘোষণা করেছে তারা।

Advertisement

বাংলায় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নেতৃত্বে তৃতীয় বার তৃণমূলের মসনদে ফেরার পর নারী কল্যানমূলক কাজগুলো সম্পন্ন হয়েছে। ভোটপূর্ব প্রতিশ্রুতি পালনের দরুন মহিলাদের ‘লক্ষীর ভান্ডার’ এর মাধ্যমে মাসিক ভাতা দেওয়া শুরু হয়েছে রাজ্যে। এছাড়াও ‘কন্যাশ্রী’ ও ‘রূপশ্রীর’ মতো একাধিক নারীকল্যানমূলক কাজ করে দেখিয়েছেন মাননীয়া মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এবার সেই অনুকরণেই যোগীরাজ্যে ক্ষমতা দখলের জন্য মরিয়া কংগ্রেস।

Advertisement

Advertisement

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button