৬০ বছর ধরে হিন্দু তীর্থযাত্রীদের অমরনাথ ভ্রমন করিয়েছেন এই মুসলিম বৃদ্ধ,করেন মন্ত্রপাঠ

ধর্ম নিয়ে বিভেদের শেষ নেই। কখনো কখনো সেই ধর্ম নিয়ে বিদ্বেষ এত পরিমাণে বেড়ে যায় যে চারিদিক অশান্ত হয়ে ওঠে। ধর্মকে হাতিয়ার করে ভারতবর্ষে বহু অশান্তি এবং ঝামেলার সৃষ্টি হচ্ছে প্রতিনিয়ত। মারামারি দাঙ্গা ইত্যাদি লেগেই রয়েছে ভিন্ন ধর্মাবলম্বীদের মধ্যে।

Advertisement

সম্প্রতি ভারতের বিভিন্ন মসজিদে হিন্দু ধর্মের প্রতীক পাওয়া যাচ্ছে। বেশ কিছুদিন আগেই বারাণসির জ্ঞানবাপি মসজিদে পাওয়া গেছে একটি শিবলিঙ্গ। এই নিয়ে তুমুল চর্চার সৃষ্টি হয়েছিল গোটা ভারত জুড়ে। তবে এত ধর্মবিদ্বেষ এর মধ্যেও কিছু কিছু ঘটনা এমন রয়েছে যা ধর্ম সমন্বয়ের বার্তা পৌঁছে দিচ্ছে সবার কাছে।

Advertisement

সেরকমই ধর্ম সমন্বয়ক হিসেবে কাজ করছেন এক ৯৫ বছরের বৃদ্ধ, গুলাম মালিক। পেহেলগাওয়ের বাটাকোট গ্রামের বাসিন্দা গুলাম মালিক। নিজের জীবনের প্রায় ৬০ বছর ধরে তিনি বহু ভক্তদের অমরনাথ দর্শনে নিয়ে গিয়েছেন। এখন বয়স হয়ে যাওয়ায় সেই কাজ আর করতে পারেন না।

Advertisement

তবে তার অমরনাথ দর্শন করাতে নিয়ে যাওয়ার একটি কারণ রয়েছে। তার প্রপিতামহ বোটা মালিক ১৮৫০ সালে প্রথম অমরনাথের গুহা আবিষ্কার করেছিলেন। এরপর থেকে তারাই সমগ্র পুনার্থীদের অমরনাথ দর্শন করাতে নিয়ে যেতেন। ২০০৫ সাল পর্যন্ত এই মালিক পরিবারই অমরনাথের পুন্যার্থীদের দর্শন করাতে নিয়ে যাওয়ার কাজটি করতেন। পরে অবশ্য এটি অমরনাথ বোর্ড নিজের আওতায় করে নিয়েছে।

Advertisement

মালিকের পরিবারই পূর্ণার্থীদের শিবলিঙ্গ দর্শন করাতে নিয়ে যেতেন এবং শিবলিঙ্গ আবিষ্কারের গল্প শোনাতেন। গুলাম মালিক সেই কাজটি করেছেন একসময়। প্রচুর পুণ্যার্থীদের তিনি গুহার ভিতর নিয়ে গেছেন। সেখানেই পুজোর মন্ত্র শুনে শুনে তার মুখস্থ হয়ে গেছে। এখন বয়সের ভারে অমরনাথ মন্দির দর্শন করাতে নিয়ে যেতে না পারলেও তিনি বাড়িতে বসেই নির্দ্বিধায় আওড়ে যাচ্ছেন অমরনাথের পুজোর মন্ত্র।

Advertisement

Advertisement

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button