চরম দারিদ্র্যের মাঝে দেশী পানিও বিক্রি করে ছেলেকে পড়াশোনা শিখিয়ে IAS বানালো হতদরিদ্র মা

 

Advertisement

কথায় আছে প্রতিভা থাকলে মানুষ যেকোনো রকম আর্থিক প্রতিকূলতাকে জয় করেও জীবনে এগিয়ে যেতে পারে। প্রতিভা থাকলে শুধুমাত্র সেটার জোরেই জীবনের বড় বড় সাফল্য অর্জন করা যায়। সোশ্যাল মিডিয়ার দরুন আমরা দৈনন্দিন বিভিন্ন রকম প্রতিভার সাক্ষী হই। এর আগেও আমরা দেখেছি কিভাবে দরিদ্র অথবা মধ্যবিত্ত পরিবারের সন্তানরা আর্থিক প্রতিকূলতাকে জয় করে বড় বড় কাজ করে দেখিয়েছেন।

Advertisement

ঠিক সেরকমই একটি ঘটনা উঠে এলো দ্বিতীয় বার। ভিল উপজাতি একটি অত্যন্ত দরিদ্র পরিবারের যুবক হয়ে দেখালেন আইএএস অফিসার। এই প্রতিভাবান যুবকের নাম হলো রাজেন্দ্র বাবু। শত বাঁধা পেরিয়ে তিনি একজন আইএএস অফিসার হয়ে দেখিয়েছেন। তবে তার একার পরিশ্রমে এই সাফল্য তিনি অর্জন করতে পারেননি তার সাফল্যের পেছনে রয়েছে তার মা এবং ঠাকুমার অনেক বড়ো অবদান।

Advertisement

রাজেন্দ্র বাবুর বাবার নাম ভান্দু ভারুদ এবং মায়ের নাম কমলা বাই। জন্মের আগেই নিজের বাবাকে হারিয়েছেন রাজেন্দ্র বাবু। ছোট থেকেই তিনি তার মা এবং ঠাকুর মার কাছেই মানুষ হয়েছেন। তার পরিবারে তার মা এবং ঠাকুমার পাশাপাশি রয়েছে আরো দুই ভাই।

Advertisement

তার মা এবং ঠাকুমা প্রতিদিন মহুয়া ফুল সংগ্রহ করে দেশীয় পানিও বিক্রি করে দৈনিক ১০০ টাকা আয় করে কোনোমতে খেয়েপড়ে বেঁচে থাকতেন ৫ জন।

Advertisement

ছোটোবেলা থেকেই খুবই মেধাবী ছাত্র ছিলেন রাজেন্দ্র বাবু। ফলে সিবিএসসি বোর্ডের স্কুল থেকে নিজের স্কুল জীবন পূর্ণ করেন তিনি। এরপর স্নাতক ডিগ্রি অর্জনের জন্য স্কলারশিপ পেয়ে ভর্তি হন মুম্বাইয়ের জিএস মেডিকেল কলেজে। এরপর ইউপিএসসি পরীক্ষার প্রস্তুতি নিয়ে ২০১২ সালে ফরিদাবাদে আইআরএস অফিসার পদে নিযুক্ত হন তিনি। পরে ২০১৭ সালে চিফ এক্সিকিউটিভ অফিসার এবং ২০১৮ সালে নন্দূবার জেলার ডিস্ট্রক্ট ম্যাজিস্ট্রেট হিসেবে নিযুক্ত হন।

Advertisement

Advertisement

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button