ব্যবসায় উন্নতির পাশাপাশি জীবনে উন্নতি ঘটাবে পান্না,জেনে নিন কারা কারা পড়তে পারবে এই রত্নটি

নবরত্নের কথা আমাদের সবারই পরিচিত। সেই নবরত্নের মধ্যে থেকে একটি রত্ন হলো পান্না। পান্নাকে বুধ গ্রহের রত্ন বলা হয়। পান্না একটি নরম রত্ন। পান্নার মধ্যে সামান্য অক্সিজেন এবং জল পাওয়া যায়। পান্নাকে সর্বদা ষড়ভুজাকৃতি পাওয়া যায়।

Advertisement

জ্যোতিষ মতে পান্না ধারনের একটি গুরুত্ব রয়েছে। পান্না বুদ্ধির বিকাশ ঘটায় এবং জ্ঞান কে মুক্ত করে। জ্যোতিষীদের মতে পান্না রোগ প্রতিরোধে সাহায্য করে। চর্ম রোগের ক্ষেত্রে এটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ। এছাড়াও পান্না মানসিক চিন্তা দূর করতে সাহায্য করে।

Advertisement

তবে রাশি অনুযায়ী পান্না পরিধান করা উচিত। জ্যোতিষীদের মধ্যে কয়েক রাশির জাতক-জাতিকাদের পান্না পরিধান করলে অনেক ক্ষতি হয়। সেসব মানুষের মনকে বিরক্ত করতে পারে পান্না। এছাড়াও শারীরিক ক্ষতিও হতে পারে। জেনে নিন কোন কোন রাশির জাতক-জাতিকাদের পান্না পরিধান করা উচিত এবং কোন কোন রাশি দের নয়।

Advertisement

বৃষ, মিথুন, কন্যা, তুলা, কুম্ভ এবং মকর রাশির জাতক-জাতিকারা পান্না পরিধান করতে পারবেন। তবে আরও কয়েকটি রাশি রয়েছে যারা বিশেষ সময়ে পান্না পরিধান করতে পারবেন। সেইসব রাশি গুলি হল সিংহ, ধনু এবং মীন রাশি। ব্যাবসায়িক লোকেদের পান্না পড়া শুভ বলে মনে করা হয়। তবে বৃশ্চিক, মেষ এবং কর্কট রাশির ব্যক্তিদের পান্না পড়া একেবারেই উচিত নয়।

Advertisement

জ্যোতিষীদের মতে কিছু নিয়ম পালন করে পান্না পরিধান করতে হয়। সর্বদা কনিষ্ঠা আঙুলে রুপো বা সোনায় পান্না পড়া উচিত। মুক্ত বা প্রবাল পান্না সঙ্গে পড়া উচিত নয়। সবুজ রঙের পান্না পড়া সবচেয়ে ভালো। পান্না পরিধানের সবচেয়ে শুভ দিন হলো বুধবার।

Advertisement

Advertisement

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button