পারিবারিক কল্যাণের জন্য কালীপুজোর আগে থেকেই জ্বালান ঘিয়ের প্রদীপ,জেনে নিন উপকারিতা

 

Advertisement

দুর্গাপুজো ও লক্ষীপুজো শেষ হয়ে এবার আসতে চলেছেন মা কালী। আর কিছুদিন পরেই কালীপুজো। কালীপুজো হওয়ার আগে থেকে যদি বাড়িতে ঘি-এর প্রদীপ জ্বালান এবং সেখানে কিছুক্ষণ সময় কাটান তাহলে পেতে পারেন শারীরিক ও মানসিক উপকার।

Advertisement

সাংসারিক, ব্যক্তিগত ও বাড়তি কাজের চাপের কারণে আমরা অনেক সময় শারীরিক ও মানসিকভাবে কষ্ট উপভোগ করি যা হয়তো কারো সাথে ভাগ করে ও মেটানো যায় না। কিন্তু আপনি কি জানেন আপনি যদি বাড়িতে ঘিয়ের প্রদীপের সামনে বেশ খানিকক্ষণ বসে ধ্যান বা মেডিটেশন করেন তাহলে আপনার এই মানসিক সমস্যা নিমেষেই উধাও হয়ে যেতে পারে।

Advertisement

ঘিয়ের প্রদীপে রয়েছে বহু গুণ। জলন্ত ঘিয়ের প্রদীপের সামনে বসে যদি খানিকক্ষণ থাকা যায় তাতে ত্বকের সমস্যা দূর হয়। শুনতে কিছুটা অবিশ্বাস্য মনে হলেও এই প্রদীপের আলোয় যে ব্লাড সার্কুলেশন সৃষ্টি হয় আপনার শরীরে তাতে শরীরে অক্সিজেনের মাত্রা ক্রমশ বাড়তে থাকে। ফলে শরীরে ত্বকের সমস্যা থাকলে তা নিমেষেই দূর হয়ে যায়। এছাড়াও মানসিক সমস্যায় ভোগা রোগীরাও এর সামনে বসে কিছুটা সুস্থ অনুভব করে নিজেদের।

Advertisement

পাশাপাশি ঘিয়ের প্রদীপের সামনে আপনি যদি খানিকক্ষণ সময় কাটান তাহলে বাড়িতে থাকা নেগেটিভ শক্তি দূরে চলে যায়। আপনার বাড়িতে যদি বহুদিন ধরে সাংসারিক অশান্তি লেগেই থাকে তবে কালীপুজোর আগে নিয়মিত প্রতিদিন ঠাকুরঘরে কিংবা যেখানে বসে আপনি কাজ করেন সেখানে এই প্রদীপ জ্বেলে রেখে দিন। দেখবেন আপনার বাড়ি থেকে কিছুদিনের মধ্যেই সমস্ত রকম নেগেটিভ শক্তি দূরে চলে গিয়েছে। এর পাশাপাশি বাস্তু সমস্যার সমাধান করে ঘিয়ের প্রদীপ।

Advertisement

Advertisement

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button