কুপ্রস্তাব দিত পরিচালক ও প্রয়োজকরা, সিরিয়ালের কাস্টিং কাউচ নিয়ে বিষ্ফোরক অভিনেত্রী প্রিয়াঙ্কা

বঙ্গ ধারাবাহিক জগতের একটি অন্যতম জনপ্রিয় ধারাবাহিক হলো ‘খড়কুটো’। দীর্ঘদিন টিআরপি রেটিংয়ের নিরিখেও এই ধারাবাহিকটি শীর্ষে ছিল। সদ্য প্রয়াত হয়েছেন এই ধারাবাহিকের আরেকজন প্রবাদপ্রতিম অভিনেতা অভিষেক চট্টোপাধ্যায়। যেখানে তিনি ধারাবাহিকের নায়িকা অর্থাৎ গুনগুনের ড্যাডির চরিত্রে অভিনয় করতেন। বহুদিন ধরে এই ধারাবাহিকে সৌজন্যের বোন অর্থাৎ চিনির চরিত্রে অভিনয় করছেন অভিনেত্রী প্রিয়াঙ্কা মিত্র।

Advertisement

এছাড়াও স্টার জলসার আরো একটি জনপ্রিয় ধারাবাহিক ‘মোহর’ এও শঙ্খর খুড়তুতো বোন এর চরিত্রে অভিনয় করতে দেখা যায় তাকে। তবে বর্তমানে অভিনয় জগতে বেশ খ্যাতি অর্জন করলেও এককালীন নাচ নিয়ে পড়াশোনা করেছিলেন প্রিয়াঙ্কা। এরপর হঠাৎ তার দাদার তোলা ছবি দেখে অভিনয়ের সুযোগ আসে তার। অভিনেত্রীর কথায় অভিনয় জগতে আসাটা তার কাছে ভীষণ আকষ্মিক ছিল।

Advertisement

তবে এগুলোই তার প্রথম ধারাবাহিক নয় এর আগে প্রিয়াঙ্কা ‘ছদ্দবেশী’ ধারাবাহিক এর মাধ্যমে অভিনয় জগতে প্রথম পা রেখেছিলেন। কিন্তু কোনো কারণবশত হঠাৎ করেই সেই সিরিয়াল থেকে উধাও হয়ে গিয়েছিলেন তিনি।‌ এরপর দীর্ঘ দুই বছর ক্যামেরার সামনে দেখা যায়নি তাকে। তবে পিছনের দিনগুলোকে একটি ভয়ঙ্কর স্বপ্ন মনে করে আবার অভিনয় জগতে নিজের পরিচয় তৈরি করতে ব্যস্ত তিনি।

Advertisement

আকস্মিক অভিনয় থেকে বেরিয়ে যাওয়ার কারণ হিসেবে তিনি সম্প্রতি কাঠগড়ায় তুলেছেন তার প্রথম ধারাবাহিকের পরিচালক ও প্রযোজকদের। প্রথম ধারাবাহিকের পরিচালক – প্রয়োজকদের ওপর আঙ্গুল উঠিয়ে তিনি অভিযোগ করেন যে ধারাবাহিকে অভিনয় করার সময় সহ অভিনেতা অভিনেত্রীর সাথে তার কোনো রকম সমস্যা ছিল না। তবে তাকে উত্ত্যক্ত করতো ধারাবাহিকের পরিচালক-প্রযোজকরা। তার ফোনে সমানে আসতো খারাপ খারাপ মেসেজ।

Advertisement

এমনকি তাদের প্রস্তাবে রাজি না হওয়ার জন্য সেটে তাকে সাংঘাতিক ভাবে হেনস্তা করা হয়েছিল। প্রথম প্রথম ভয়ে ভয়ে কাটাতেন অভিনেত্রী। বাড়ি ফিরে এসে কাঁদতেন। এরপরই ধারাবাহিক থেকে সরে আসার সিদ্ধান্ত নেন তিনি। এরপর প্রায় দু’বছর ইন্ডাস্ট্রির দিকে পা বাড়াননি তিনি। তবে বর্তমানে তিনি অনেকটাই বদলে গিয়েছেন বলে জানান তিনি। বর্তমানে তিনি কাউকে ভয় পান না বরং শক্ত হয়ে কাজ করেন তিনি।

Advertisement

Advertisement

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button