বাবার মৃত্যু শোক সামলে না উঠতেই ফের দুঃসংবাদ,অভিষেকের মরদেহ জড়িয়ে ধরে কান্না রচনা ব্যানার্জির

গত দু তিনদিন ধরেই পেটের সমষ্যায় আক্রান্ত ছিলেন অভিষেক চট্টোপাধ্যায়। অসুস্থ হবার পর হাসপাতালে ভর্তি হতে চাননি তিনি বাড়িতেই চলছিল চিকিৎসা। ৫৭ বছর বয়সী অভিনেতার এই অকাল মৃত্যুতে শোকস্তব্ধ গোটা টলিউড জগত।

Advertisement

টলিউড জগতের প্রায় সব অভিনেতা অভিনেত্রীর সাথে ভিষন সুসম্পর্ক বজায় ছিল অভিষেক চট্টোপাধ্যায় এর – তাই তাঁর অকালমৃত্যুতে প্রায় ভেঙে পড়েছেন সকল অভিনেতা-অভিনেত্রী। ইন্দ্রানী হালদার,রচনা ব্যানার্জি বিশিষ্ট অভিনেত্রী দের একদমই পছন্দের কাছের ব্যক্তি ছিলেন তিনি বহু জনপ্রিয় সিনেমায় একসাথে অভিনয় করেছেন তাঁরা।

Advertisement

শেষবারের মতো তাঁকে দেখতে এসে ভেঙে পড়েছেন অনেক বাংলা তারক তারকারা। মিঠুদা কে হারিয়ে একেবারেই ভেঙে পড়েছেন রচনা ব্যানার্জি সকাল থেকেই অভিষেক চট্টোপাধ্যায় কে বিদায় জানাতে উপস্থিত ছিলেন বাংলার তারকারা। অভিষেকের মৃতদেহ দেখে রচনা ব্যানার্জি ভিষন কাঁদতে থাকেন। এবং সাথে অনান্য অভিনেত্রীরাও প্রত্যেকে স্বাভাবিকভাবেই কাঁদতে শুরু করে দিয়েছিলেন। বাড়ির সামনে রাখা হয়েছিল দেহ। সাদা কালো পোশাকে দেখা যায় শোকাহত রচনা বন্দোপাধ্যায়কে।

Advertisement

রচনা বন্দ্যোপাধ্যায় নিজেকে সামলাতে না পেরে বারবার বলছিলেন ”এটা কিছুতেই হতে পারে না! আমি কিছুতেই কিছু মেনে নিতে পারছি না। আমার বাবার পর যে কয়েকজন মানুষ আমার সবচেয়ে কাছের ছিলেন, তার মধ্যে তুমিই তো একজন। এটা কী করে হতে পারে?”

Advertisement

ইন্দ্রানী হালদার এবং জয়জিৎ, অভিনেত্রীকে সামলানোর চেষ্টা করেছিলেন, তবে সফল হতে পেরে ওঠা সম্ভব হয়ে ওঠেনি। কিছুদিন আগেই অভিনেত্রীর পিতার মৃত্যু হয়েছিল সেই শোক কাটিয়ে উঠতে না উঠতেই প্রয়াত হলেন অভিষেক যা ইন্ড্রাস্টির কারোর কাছে বিশ্বাসযোগ্য নয় । এমত অবস্থায় কারোর কাছে নিজেকে শান্তনা দেবার কোনো ভাষা নেই।

Advertisement

Advertisement

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button