খবরখেলাধুলা

ডক্টর সপ্তর্ষির পরামর্শ মেনে তৎক্ষণাৎ হাসপাতালে পৌঁছানোর কারণে বড়োসড়ো বিপদ এড়ানো সম্ভব হয়েছে।

Advertisement

সকালে ওয়ার্কআউট শুরুর পরপরই শরীর অস্বস্তি অনুভব করছিলেন সৌরভ গাঙ্গুলী। এরপরে ট্রেডমিলে দৌড়ানো শুরু করেন। আর তখনই ব্ল্যাক আউট হয় তার। এরপরই কোনমতে নিজেকে সামলে নেন সৌরভ। তৎক্ষণাৎ পরিবারের ডাক্তারকে ফোন করেন সৌরভ নিজেই। সেই সময়ই মহারাজ কে হাসপাতালে ভর্তির পরামর্শ দেন ডক্টর সপ্তর্ষি আর সঠিক সময় হাসপাতালে পৌঁছানোর কারণে বিপদ এড়ানো সম্ভব হয়েছে বলে জানা যায়।

Advertisement

Advertisement

সৌরভের চিকিৎসার জন্য পাঁচজনের একটি মেডিকেল টিম গঠন করা হয়। সরোজ মন্ডল, আফতার খান, ভবতোষ বিশ্বাস, এস বি রয়, শৌতিক পান্ডার মত ডাক্তাররা রয়েছেন সেই দলে। কার্ডিয়াক সার্জেন্ট রা ৪৮ ঘন্টা তাকে নজর রাখবেন।

Advertisement

Advertisement

ডক্টর খান জানিয়েছেন সৌরভের হার্টে তিনটি ব্লকেজ ছিল। সঠিক সময় হাসপাতালে এসেছিল বলে বড়োসড়ো বিপদ এড়ানো সম্ভব হয়েছে। ইসিজি রিপোর্ট এখন ভালো তবে যে কষ্ট ব্যথা নিয়ে সৌরভ হাসপাতালে এসেছিল তা এখন নেই। সৌরভ এখন ভালো আছে।

Advertisement

Advertisement

সার্জারি নিয়ে এখনো কোনো সিদ্ধান্ত নেওয়ার প্রশ্ন নেই। তবে এখন ঝুঁকি নেই। সৌরভ উঠে বসেছেন। তিনি সজ্ঞানে রয়েছেন। একটু পরেই খাবার চলবে। এখন সৌরভকে অন্তত ৪-৫ দিন হাসপাতালে থাকতে হতে পারে। হাসপাতাল থেকে বেরোলেই আগের মত সুস্থ হয়ে উঠবে।

Advertisement
Advertisement

Advertisement

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button